পাটজাত পণ্য প্রস্তুতকরন

৳ 50

Description

পাট শিল্প হলো বর্তমানে বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান ভারী শিল্প। পাট ও পাটজাত পণ্য দেশে যেমন গুরুত্ব, তেমনি বিশ্ব বাজারেও সমাদৃত । পাট শিল্পের সাথে বাংলাদেশের ইতিহাস, ঐতিহ্য ও সংস্কৃতি জড়িত। পাটের অর্থনৈতিক গুরুত্বের সাথে সাথে তার রয়েছে সামাজিক ও সাংস্কৃতিক গুরুত্বও। পাট আমাদের অস্তিত্বের সাথে জড়িত। সম্প্রতি পাটের জীবন রহস্য আবিষ্কার করেছেন আমাদের দেশের একজন বিজ্ঞানী । দুনিয়া ব্যাপী যেখানে পরিবেশবাদীরা প্লাস্টিক দ্রব্য ব্যবহারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছেন, সেখানে পাট হতে পারে অন্যতম বিকল্প ।

আধুনিকায়নের ফলে পাটখাত পুনরায় অর্থনীতিতে গৌরবোজ্জ্বল ভূমিকা রাখছে। দেশের অর্থনীতি ও মানবসম্পদ উন্নয়নসহ সামাজিক নিরাপত্তা নিশ্চিতকরনে ব্যপক ভূমিকা রাখছে পাটখাত । বাংলাদেশের পাট এখন শুধুমাএ দেশের ভেতরেই নয় দেশের বাহিরে ও পাট থেকে বিভিন্ন রকম ‍বৈচিএ্যময় পন্য প্রস্তুত করে বিদেশে ও রপ্তানী হচ্ছে ।

বলা হয়ে থাকে” বাংলাদেশের পাট বিশ্বমাত” । যে পাট থেকে এক সময় শুধুমাএ ‍সুতা ও বস্তা উৎপাদন হতো, আজ সেই পাট থেকে দেশিয় উদ্দ্যেগতাগন তৈরী করছেন শাড়ি, ব্যাগ, জুতা, স্যান্ডেল, বিছানার চাদর, পর্দা সোফার কভার,কার্পেট এবং আরো নানা ধরনের পণ্য। বৈচেএ্যময় এসব পন্যের দেশে এবং দেশের বাহিরে রয়েছে ব্যাপক চাহিদা ।

দেশিয় উদ্দ্যোগতাদের এসব সফলতার আলোকে আপনাদেরকে দক্ষ করে গড়ে তোলার জন্য এবং অমিত সম্ভাবনার এই খাতে কিভাবে আপনিও হয় উঠতে পারেন একজন উদ্দ্যোগতা – সে দিকে লক্ষ্য রেখেই ঐক্যএসএমইডিজিটালইন্সটিটিউট চেষ্টা করছে আপনাকে কিভাবে একজন দক্ষ উদ্দ্যেগ হিসাবে গড়ে তুলে যায়।

সে লক্ষ্যে জাতীয় পযার্য়ে খ্যাতিমান ট্রেনার উদ্দ্যেগতাগন দূর-শিক্ষনের মাধ্যমে আপনাদের শিখাবে পাট ব্যবহার করে বিভিন্ন পন্য ‍উৎপাদন করে তা দিয়ে কিভাবে ব্যবসা শুরু করা যায় । সুতরাং আর দেরী না করে, এখনই শুরু করুন, হয়ে যান একজন দেশিয় উদ্দ্যোগতা ।