চামড়াজাত পণ্য প্রস্তুতকরন

৳ 50

Category:

Description

চামড়া শিল্পকে ঘিরে রয়েছে কর্মসংস্থানের অনেক সুযোগ। বর্তমানে সম্ভাবনাময় শিল্পগুলোর মধ্যে অন্যতম শিল্প হিসেবে বেশ সাড়া জাগিয়েছে চামড়া শিল্প। বাংলাদেশে তৈরি চামড়াজাত পণ্যের মান ভালো হওয়ায় আন্তর্জাতিক বাজারেও এর রয়েছে বেশ কদর। বড় প্রতিষ্ঠানগুলোর পাশাপাশি দেশে প্রায় সাড়ে চার হাজার ছোট জুতা তৈরির কারখানা রয়েছে। দেশে বর্তমানে প্রায় ১০০টি আধুনিক ট্যানারি চামড়া প্রস্তুত করছে। এরই মধ্যে অন্তত ৫১টি প্রতিষ্ঠান যৌথ বিনিয়োগে বাংলাদেশের জুতা শিল্পে কাজ করার আগ্রহ প্রকাশ করেছে। লেদার গুডস অ্যান্ড ফুটওয়্যার ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টার্স অ্যাসোসিয়েশনের তথ্যানুযায়ী, দেশে বর্তমানে ১১০টি রফতানিমুখী কারখানায় চামড়ার জুতা তৈরি হয়। শুধু চামড়া প্রক্রিয়াজাত করে এমন কারখানার সংখ্যা ২০৭টি। এ খাতের সঙ্গে সরাসরি জড়িত আছে প্রায় ৭ লাখ ৪১ হাজার মানুষ। ক্রমবর্ধমান এ শিল্পে দরকার হচ্ছে প্রচুর দক্ষ জনবলের।বেকার তরুণদের প্রশিক্ষণের আওতায় আনতে পারলে এ শিল্পে প্রচুর কর্মসংস্থান হবে।

বর্তমানে শুধু বড় প্রতিষ্ঠানই নয় অনেক ক্ষুদ্র ও মাঝারি এস এম ই উদ্দ্যোগতাগন চামড়া শিল্পে কাজ করে যাচেছন । এমনকি তাদের পন্য বিদেশেও রপ্তানী হচেছ । চামড়া শিল্পের জন্য কাচামাল আমাদের দেশে পাওয়া যায় বিধায় এই শিল্পে কাজ করা তুলনামূলক সহজ ।দেশিয় উদ্দ্যেগতাগন বৈচিএ্যময় পন্য উৎপাদনের মাধ্যমে নানান ডিজাইনের গুনগত মান সম্পন্ন পন্য উৎপাদন এবং তা রপ্তানী করে দেশের জন্য বৈদেশিক মূদ্রা বয়ে আনছে ।

চামড়ার পণ্য পরিবেশবান্ধব হওয়ায় বিশ্বব্যাপী এর চাহিদা বাড়ছে । শীতপ্রধান দেশগুলোতেও পণ্যের চাহিদা বেশি । বাংলাদেশ থেকে এখন ফিনিশড চামড়ার পাশাপাশি জুতা, ট্রাভেল ব্যাগ, বেল্ট, মানিব্যাগ, জ্যাকেট, চাবির রিং, কার্ড হোল্ডার রপ্তানি হচ্ছে।

সুতরাং ব্যাপক সম্ভাবনাময় এই শিল্পের একজন উদ্দ্যোগতা হিসাবে নিজেকে গড়ে তুলতে , আজই শুরু করুন প্রশিক্ষন ঐক্যএসএমইডিজিটালইন্সটিটিউটএর সাথে । দূর-শিক্ষনের মাধ্যমে প্রশিক্ষন নিন ঐক্যএসএমইডিজিটালইন্সটিটিউটথেকে । হয়ে উঠুন একজন উদ্দ্যেগতা ।