শাহিদা পারভিন
শাহিদা পারভিন
সফল উদ্যোক্তা ও প্রশিক্ষক
শাহিদা পারভিন সম্পর্কে

১৯৯৯ সালে মাস্টার্সে পড়াকালীন সময়ে বাসাবোতে হস্ত শিল্প ঘর-এ ৩০ জন কর্মী নিয়ে কাজ শুরু করেন শাহিদা পারভীন। পাশাপাশি একটি নারী সমিতি গঠন করে বেশ কিছু নারীকে নিয়ে ‘আট আনা দিয়ে নেটের ব্যাগ তৈরি থেকে শুরু করে সালোয়ার কামিজ তৈরি, সেই থেকে শুরু।

২০১১ সাল, ব্যাংকে জমা ছিল মাত্র ৪০ হাজার টাকা। সঞ্চিত সেই আমানত ভেঙ্গে যাত্রা শুরু করলেন শাহিদা পারভীন। ভাবলেন, ডাইভারসিফাইড জুট প্রোডাক্ট নিয়ে সারা বাংলাদেশ এবং বিশ্বকে উপহার দিবেন নতুন এক ব্যবসায়িক ভুবন।মাত্র ২ জন কর্মী নিয়ে বাসা সাজানো বা অফিস সাজানো, ডেকোর, শো-পিস, কর্পোরেট গিফট আইটেম, ৮টি আইটেমের কাজ শুরু করলেন, সাড়াও মিললো ব্যাপক। লুবনান, ইনফিনিটি, কম দাম এবং ভীষণ রুচিশীল পণ্য, হাউজ, অফিস ডেকোর, শো পিস, প্রথম বছরেই ব্যবসায় বাজিমাত।

২০১১ সালে ৫ লক্ষ টাকার একটি অর্ডার পেলেন, এই অর্ডার উদ্যোক্তাকে জানান দিলো স্বপ্নের পথে হেটে যাবার কথা এবং সফলতার সিঁড়ি ছোঁয়ার কথা। ২০১২-২০১৩ সালে বড়বড় কিছু অর্ডার উদ্যোক্তাকে পৌঁছে দেয় অফিসিয়াল লেজারে ১ কোটি ৩০ লক্ষ টাকার সেলস রেকর্ড বুকে। সে বছরেই মিললো বাংলাদেশ উইমেন চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রির ”গ্রামীণফোন প্রোগ্রেসিভ অ্যাওয়ার্ড ২০১৪”। সেরা নারী অ্যাওয়ার্ড উদ্দ্যোগক্তাকে এনে দিলো দারুণ অনুপ্রেরণা।

ব্যবসা বাড়তে থাকলো। ২০ থেকে ২৫ জন কর্মী ফুলটাইম কাজ করতে শুরু করলেন উদ্যোক্তার সাথে। ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে ব্যবসার পরিধি, প্রথমে বাসার একটি রুম থেমে যাএা শুরু করা ব্যবসা ২০১৬ সালে এসে দাড়ায় ২৫০০ ২৫০০ স্কয়ার ফিটের একটি বড় কারখানায়।

২০১৬ সালের ডিসেম্বর দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড ফেয়ারে অংশগ্রহণ উদ্যোক্তার পথ চলাকে করে আরো বিস্তৃত, সমৃদ্ধ। ২০১৭ সালে হংকং ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড ফেয়ার, কোলকাতা ইন্টারন্যাশনাল ট্রেড ফেয়ার সহ সবগুলোতে অংশ নিলেন উদ্যোক্তা। সাত-আট ক্যাটাগরির পণ্য শো পিস ডেকোর, হোম ডেকোর, অফিস স্টেশনারি, ব্যাগ, পোশাক, লাইফ স্টাইল, প্রোডাক্ট, সব মিলিয়ে প্রায় সাত ক্যাটাগরির পণ্য ১৩৫ টি পন্য তৈরী করেন তার প্রতিষ্ঠান । স্বীকৃতি স্বরুপ ২০১৭ সালে শিল্প মন্ত্রণালয় থেকে পেয়েছেন “Productivity and quality excellence award”. ২০১৮ সালে শাহিদা পারভিন এর ট্রিম টেক্স মাইক্রো ক্যাটাগরিতে শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হয়ে জাতীয় এসএমই সপ্তাহে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর হাত থেকে পুরুষ্কার গ্রহন করেন । এছাড়া ২০১৯ সালে আমেরিকার হিউস্টন থেকে প্রদানকৃত ”Business Management” এর উপর The Bizz Award এ ভূষিত হন।

অভিজ্ঞ প্রশিক্ষক শাহিদা পারভিন আছেন ঐক্য এসএমই ডিজিটাল ইন্সটিটিউট এর সাথে। তাঁর কাছ থেকে দূর-শিক্ষণের মাধ্যমে শিক্ষুণ, তাঁর অভিজ্ঞতার আলোকে হস্ত-শিল্পসহ – বৈচিএ্যময় পাটজাত পণ্যের নানানদিক। কিভাবে পাটজাত পণ্য প্রস্তুতকরা হয় এবং তা বাজারজাতকরনে তাঁর অভিজ্ঞতালবদ্ধ সাজেশন আপনার জন্য নিঃসন্দেহে নতুন দিগন্তের সূচনা করবে।

সুতরাং আর দেরী না করে আজই শুরু করুন প্রশিক্ষণ, “ঐক্য এসএমই ডিজিটাল ইন্সটিটিউট” এর আয়োজনে ঘরে বসেই অভিজ্ঞ উদ্দ্যোগতা ট্রেইনার সাথে ট্রেনিং গ্রহন করুন, হয়ে উঠুন একজন সফল এসএমই উদ্দ্যোক্তা।